করোনাভাইরাস বিনাশে দেবতাকে তুষ্ট করতে স্বপ্নাদেশে নরব’লি!

প্রাণঘাতী মহামারী নভেল করোনাভাইরাস বিনাশে দেবতাকে তুষ্ট করতে স্বপ্নাদেশে নরব’লি দিয়েছেন ভারতের ওড়িষ্যার এক পুরোহিত। পরে ওই পুরোহিত পু’;লিশের কাছে আ’ত্মসম’র্পণ করলে ঘটনা জানা যায়। গত ২৭ মে, বুধবার রাতে ওই পুরোহিত ওড়িষ্যার কটকের নরসিংহপুর থা’না এলাকার বাঁধহুদা গ্রামের এক মন্দিরে এ ম’র্মা’ন্তিক ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পরদিন সকালে স্থানীয় থা’নায় আ’ত্মসম’র্পণ করেন ৭২ বছর বয়সী পুরোহিত সংসারী ওঝা। তিনি ত’দন্ত’কারীদের কাছে দাবি করেন, করোনাভাইরাসকে বি’নাশ করতে মন্দিরের দেবীর কাছ থেকে নরব’লি দেয়ার স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন তিনি।

যে কারণে সরোজকুমার প্রধান (৫২) নামের ওই ব্যক্তিকে কু;ড়াল দিয়ে কু’;পিয়ে মাথা কেটে ফেলেন এই পুরোহিত।

তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন ভিন্ন কথা। তারা জানান, সরোজের সঙ্গে ওই গ্রামের একটি আমবাগান নিয়ে পুরোহিত সংসারী ওঝার দীর্ঘ দিন ধরে বিবাদ চলছিল। সে ঘটনার জেরেই এমন হ’;ত্যা’কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি।

তদন্তকারীরা জানান, ঘটনার রাতে সরোজের সঙ্গে নরব’লি নিয়েই তর্কাতর্কি হয় বলে তাদের কাছে জানান সংসারী ওঝা। এরই এক পর্যায়ে সরোজের মাথায় কু’;ড়াল দিয়ে আ’ঘাত করেন তিনি। এতে ঘটনাস্থলেই প্রা’ণ হা’রান সরোজ। পরদিন সকালেই পু’;লিশের কাছে গিয়ে আ’ত্মসম’র্পণ করেন এই পুরোহিত।

নি’হত সরোজের দেহ ময়’নাত’দন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে উল্লেখ করে কটকের ডিআইজি (সেন্ট্রাল রেঞ্জ) আশিসকুমার সিংহ বলেন, ‘প্রাথমিক ত’দন্তে জানা গেছে, বুধবার রাতে ঘটনার সময় মত্ত অবস্থায় ছিলেন সংসারী ওঝা। পরের দিন সকালে তার হুঁশ ফিরলে পু’;লিশের কাছে এসে আ’ত্মসম’র্পণ করেন তিনি। খু;নের কথা স্বীকারও করে নিয়েছেন সংসারী।’